বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০৭:১৬ অপরাহ্ন

ইউএনওকে লাঞ্ছিত করে ফেসবুকে লাইভ, ইউপি চেয়ারম্যান সাময়িক বরখাস্ত

ইউএনওকে লাঞ্ছিত করে ফেসবুকে লাইভ, ইউপি চেয়ারম্যান সাময়িক বরখাস্ত

নিউজটি শেয়ার করুন

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের ছাতকে সিংচাপইড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেলকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

হাওরের বোরো ফসলরক্ষা কাজের অতিরিক্ত বিল আদায়ে ছাতক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পাউবোর উপসহকারী প্রকৌশলীকে অবরুদ্ধ রেখে লাঞ্ছিত করা হয়।

এরপর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করার ঘটনা তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে তাকে বরখাস্ত করা হয়।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের ইপ-১ অধিশাখা থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। ১৫ জুলাই মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. ইখতেখার আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপন জারি হয়। এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম।

জানা যায়, গত ১৭ মে ছাতক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসকক্ষে ঢুকে সিংচাপইড় ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেল স্থানীয় চাউলীর হাওরের বাঁধের অতিরিক্ত বিল দাবি করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাছির উল্লাহ খান ও পাউবোর উপসহকারী প্রকৌশলী সাহাদাত হোসেনকে অবরুদ্ধ করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন ও লাঞ্ছিত করেন তিনি।

পরে পুরো ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ৫০ মিনিট লাইভ প্রচারও করেন তিনি। ঘটনাটি ফেসবুকে লাইভ প্রচার হওয়ায় জেলাজুড়েই ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন থেকে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটি সরেজমিনে ঘটনার তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা প্রমাণ পান।

এদিকে ইউপি চেয়ারম্যান সাহেলের বিরুদ্ধে ছাতক থানায় দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা রয়েছে। পুলিশ সেই মামলার অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করেছে। এছাড়াও ইউপি চেয়ারম্যান সাহেলের বিরুদ্ধে পুলিশ অ্যাসল্টসহ আরও দু’টি মামলা চলমান রয়েছে।

সিংচাপইড় ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেলকে মন্ত্রণালয় থেকে সাময়িক বরখাস্তের পাশাপাশি কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। নোটিশে বলা হয়েছে কেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে চূড়ান্তভাবে অপসরাণ করা হবে না তার জবাব পত্রপ্রাপ্তির ১০ দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রেরণ করার নির্দেশ প্রদান করা হয়।

সাময়িক বরখাস্ত ও মন্ত্রণালয়ের কারণ দর্শানোর নোটিশ পাওয়ার বিষয়ে কথা বলতে চাইলে ফোন রিসিভ করেননি বরখাস্তকৃত ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেল।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ