মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:৪০ পূর্বাহ্ন

এমসি কলেজে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ, ৪ সাংবাদিক আহত

এমসি কলেজে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ, ৪ সাংবাদিক আহত

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত সিলেট ::ঐতিহ্যবাহী এমসি কলেজে বসন্ত উৎসবের অনুষ্ঠান চলাকালে ছাত্রলীগের দুই পক্ষ মারামারিতে জড়িয়েছে। এর ফলে বসন্ত উৎসব অনুষ্ঠান পন্ড হয়ে গেছে। সংঘর্ষের ছবি তুলতে গিয়ে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের হামলার শিকার হয়েছেন চারজন সাংবাদিক।

হামলার শিকার সাংবাদিকরা হলেন, দৈনিক সমকালের আলোকচিত্রী ইউসুফ আলী, দৈনিক ভোরের কাগজের আলোকচিত্রী অসমিত অভি, দৈনিক শুভ প্রতিদিনের আলোকচিত্রী মিঠু দাস জয় ও সিলটিভি ডটকমের ক্যামেরাপার্সন কাউসার আহমদ। তাদেরকে নগরীর একটি সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বসন্ত উৎসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করে কলেজের ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংগঠন মোহনা। সোমবার সকালে শুরু হওয়া এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর সালেহ আহমদ। তার বক্তব্যের পর ছাত্রলীগের নেতাদের বক্তব্যের সুযোগ দেওয়া হয়। কিন্তু, অনুষ্ঠানস্থলে বসা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। উপাধ্যক্ষ তাদেরকে নিভৃত করার চেষ্টা করেন। পরবর্তীতে লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে দুই পক্ষ কলেজের মধ্যে অবস্থান নেয়। চলে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া।

খবর পেয়ে এসএমপির শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আকতার হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ কলেজে যায়। পুলিশের ধাওয়ায় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। কিন্তু, পরবর্তীতে কলেজ ছাত্রাবাসে অবস্থান নিলে আবারো উত্তেজনা দেখা দেয়। উপাধ্যক্ষ পুলিশ ডেকে পাঠান ছাত্রবাসে। বিকেল ৪টা পর্যন্ত উত্তেজনা বিরাজ করছিল। পরে কলেজ কর্তৃপক্ষ ও পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

হামলার শিকার দৈনিক ভোরের কাগজের আলোকচিত্রী অসমিত অভি জানান, “এমসি কলেজে মোহনা বসন্ত উৎসব চলাকালে চেয়ারে বসাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ বাঁধে। পরে দৈনিক শুভ প্রতিদিনের ফটো সাংবাদিক মিঠু দাস জয় এগিয়ে গিয়ে তাদের সংঘর্ষের ছবি তুলতে গেলে তার ওপর চড়াও হয় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কর্মীরা। পরে অন্যান্য সাংবাদিকরা এগিয়ে গেলে তাদের উপরও হামলা করে ছাত্রলীগ কর্মীরা।”

এ ব্যাপারে দৈনিক সমকালের ফটো সাংবাদিক ইউসুফ আলী বলেন, “ছাত্রলীগ কর্মীরা উপস্থিত সাংবাদিকদের উপর হামলা করেছে। হামলার সময় আমার হাতে থাকা ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু সকলের উপস্থিতিতে পরে তা আর ছিনিয়ে নেয়া সম্ভব হয়নি।”

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের শাহপরান (র:) থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার হোসেন বলেন, “আমর ঘটনাস্থলে আছি। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে সেখানকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ব্যাপারটি আমরা গুরুত্বের সাথে দেখছি।”

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ