রবিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৯, ০৯:২৮ পূর্বাহ্ন

কারো চোখ বাঁধা হয়নি, এটা ভুল বোঝাবুঝি: ডিবি

কারো চোখ বাঁধা হয়নি, এটা ভুল বোঝাবুঝি: ডিবি

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত  ডেস্ক  :  কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্লাটফর্ম সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের তিন নেতাকে চোখ বেঁধে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ- ডিবি।

মঙ্গলবার সকালে মিন্টু রোডে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলেন এ দাবি করেন যুগ্ম কমিশনার আব্দুল বাতেন। তিনি বলেন, এটা ভুল বোঝাবুঝি।

জাল ভিসায় চারজনকে গ্রেফতারের ঘটনায় এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

আবদুল বাতেন বলেন, আন্দোলন নিয়ে আমাদের কোনো অবস্থান নেই। উপাচার্যের বাসায় হামলার ঘটনায় করা মামলার তদন্ত করছি আমরা। এ জন্য একাধিক শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন সময়ে ডিবি কার্যালয়ে ডাকা হচ্ছে। যেহেতু হামলাকারীদের আমরা সরাসরি চিনি না, তাদের চেনার সহযোগিতার জন্য একাধিকবার ছাত্রদের এখানে ডেকে আনা হয়েছে। তদন্তের যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে যুগ্ম কমিশনার বলেন, ছাত্ররা যে দাবি করছেন, তাদের চোখ বেঁধে আনা হয়েছে, এটা ভুল বোঝাবুঝি। তাদের বিরুদ্ধে সরাসরি কোনো অভিযোগও নেই। তারা মামলা প্রত্যাহার চেয়েছেন, কিন্তু সেটির সঙ্গে তাদের ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে আসার কোনো সম্পর্ক নেই। তারা যে বক্তব্য দিয়েছেন, এর ব্যাখ্যা তারাই দিতে পারবেন।

সোমবার কোটা সংস্কার আন্দোলনের ঘটনায় দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানোর দুই ঘণ্টার মধ্যে আন্দোলনকারী তিন নেতাকে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ।

তারা হলেন- বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের তিন যুগ্ম আহ্বায়ক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র নুরুল হক, এমবিএর (ব্যাংকিং অ্যান্ড ইনস্যুরেন্স বিভাগ) ছাত্র রাশেদ খান এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র ফারুক হাসান।

তাদের তুলে নেয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠলে এক ঘণ্টার মধ্যে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

ক্যাম্পাসে ফিরে এসে তিন ছাত্রই সাংবাদিকদের জানান, তাদের গাড়িতে তুলে চোখ বেঁধে ফেলা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৮ এপ্রিল থেকে পাঁচ দিন ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের প্রায় সব পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলন করেন।

পরে ১২ এপ্রিল জাতীয় সংসদের অধিবেশনে কোটা পদ্ধতি বাতিল ঘোষণা করে সব চাকরিতে শতভাগ মেধার ভিত্তিতে নিয়োগের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর পর শিক্ষার্থীরা আন্দোলন স্থগিত করার ঘোষণা দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ