সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন

কী হবে ২০১৯ সালের লাইফস্টাইল ট্রেন্ড?

কী হবে ২০১৯ সালের লাইফস্টাইল ট্রেন্ড?

নিউজটি শেয়ার করুন

লাইফস্টাইল ডেস্ক:নতুন বছর মানে ২০১৯ সালে আমাদের জীবনে নতুন নতুন কী আসবে, কী যাবে- তা নিয়ে চলছে আলোচনা। নানান আভাস আর জল্পনা কল্পনা নতুন বছরে লাইফস্টাইলের নতুন ট্রেন্ডগুলো চিহ্নিত করেছে।

ফিরে আসবে ফ্লিপ ফোন

ফ্ল্যাটস্ক্রিন বড় আকারের ফোনগুলো আসার আগে ফ্লিপফোন ছিল জনপ্রিয়তার শীর্ষে। ২০১৯ এ নতুন প্রযুক্তির ফ্লিপ ফোন এসে বাজার দখল করতে যাচ্ছে। সময়ের প্রয়োজনেই তা আসবে অবশ্য। হালকা ওজনের ও বড় আকারের ফ্ল্যাটস্ক্রিন ফোন ব্যবহার করতে সুবিধা হলেও সবারই অন্তত একবার করে মোবাইল ফোনের স্ক্রিন ভেঙে যাওয়ার অভিজ্ঞতা আছে। বেশিরভাগ ফোনে আলাদা করে স্ক্রিন প্রোটেক্টর ব্যবহার করতে হয়। আবার ফোনের আকার বড় হওয়ায় তা বহনে কিছুটা অসুবিধাও দেখা দেয়।

২০১৯ এর ট্রেন্ড

এসব কারণেই ফ্লিপফোনগুলোর ফিরে আসার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। প্রযুক্তিবিশেষজ্ঞরা মনে করছেন বর্তমান স্মার্টফোনগুলোর মত আধুনিক প্রযুক্তির ফ্লিপ ফোন যা আকারে বর্তমান ফোনগুলোর অর্ধেক হবে তা সময়ের প্রয়োজনেই ফিরে আসবে ও জনপ্রিয় হবে।

এসব চাহিদাকে মাথায় রেখে চাইনিজ কোম্পানি রয়ল’স ফ্লেক্সপাই ইতোমধ্যেই গতমাসে (নভেম্বর ২০১৮) ভাঁজ করা যায় এমন (ফোল্ডেবল) মোবাইল ফোন বাজারে ছেড়েছে। ধারণা করা হচ্ছে স্যামসাঙের গ্যালাক্সি এক্স সিরিজ আগামী মার্চে ফোল্ডেবল মোবাইল নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে আসবে।

অন্যদিকে মটোরোলা এবং হুয়াওয়েও ফোল্ডেবল মোবাইল বাজারে ছাড়ার কাজ করছে।

৩০ ঘন্টার সাপ্তাহিক কর্মঘন্টা

উন্নত বিশ্বে সপ্তাহে পাঁচদিন কাজ করতে হয়। কিন্তু তরুণরা সেটাও করতে চাইছে না। তাই অনেকেই মনে করছেন ২০১৯ সালে চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো সপ্তাহে চারদিন কর্মঘন্টা চালু করতে পারে।

২০১৯ এর ট্রেন্ড

সাম্প্রতিক অনেক গবেষণাতেই দেখা যাচ্ছে তরুণ প্রজন্ম কেরিয়ারে উন্নতির চেয়ে ওয়ার্ক-লাইফ-ব্যালান্স অর্থাৎ জীবনযাপন ও কাজের মাঝে ভারসাম্য বজায় রাখতে বেশি আগ্রহী। নিউজিল্যান্ডে এক ফার্মে পরীক্ষামূলকভাবে চারদিন কর্মঘন্টা চালু করেছিল। এতে করে সেখানকার কর্মচারিরা অনেক বেশি উৎপাদনশীলতা দেখিয়েছেন। সপ্তাহে চারদিনের কর্মঘন্টার ফলাফল দেখে ম্যানেজমেন্ট এতটাই সন্তুষ্ট যে তারা সপ্তাহে চারদিন কাজটাকেই স্থায়ী করতে চাইছেন।

আমেরিকা ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান বেজোস ফ্যামিলি ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এলেন গ্যালিনস্কি বলেন, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলো ভালো মানের কাজ পেতে কর্মঘন্টা কমানোর ব্যাপারে ভাবছে ও অনুসন্ধান করছে। তিনি মনে করেন কর্মঘন্টা কমানো এখন সময়ের দাবি।

অল্প সময়ের ভ্রমণ

সারা পৃথিবীতেই যত লোক ভ্রমণ করে তাদের অর্ধকের বেশি লোক ২০১৯ সালে বেশি সময়ের জন্য ভ্রমণে না গিয়ে অল্পসময়ের জন্য যেতে আগ্রহী।

২০১৯ এর ট্রেন্ড

বুকিং ডট কমের এক জরিপ অনুযায়ী ৫৩ শতাংশ বৈশ্বিক পর্যটক (গ্লোবাল ট্রাভেলার) সপ্তাহান্তে ছোট ছোট ভ্রমণের ব্যাপারে বেশি আগ্রহী হয়ে উঠছে। একে বলা হচ্ছে বাইট সাইজ ট্রাভেল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও একরাতের জন্য শহরের বাইরে যাওয়ার ট্রেন্ডটা জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। ছোট ছোট ভ্রমণের সুবিধা হল এতে করে সারাবছরব্যপী অনেক জায়গায় যাওয়া যায়।

দৈর্ঘ কমবে টিভি অনুষ্ঠানের

ঘরে টিভি দেখার সময় কমে যাচ্ছে। এখন দেখা যায় বিল দেওয়ার জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে বা বাস ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করতে করতে বা গাড়ির সিটে বসে বসেই মোবাইল বা ট্যাবে বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান বা খবর দেখে মানুষ। ফেসবুক, ইউটিউব, ইনস্টাগ্রাম কি নাই হাতে! মানুষকে টেলিভিশন অনুষ্ঠানের দিকে আকৃষ্ট করতে তাই টিভির অনুষ্ঠানের সময় কমিয়ে ফেলার দিকে ঝুঁকছে সংশ্লিষ্টরা।

২০১৯ এর ট্রেন্ড

মিডিয়া মুঘল হিসেবে খ্যাত আমেরিকান প্রযোজক জেফরি পিঙ্ক বলেন আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাপনের মাঝেই যেন স্বল্প সময়ের জন্য টিভির অনুষ্ঠানগুলো দেখতে পারি দুনিয়া সেদিকেই যাচ্ছে। নতুন বছরে দুই থেকে সাত মিনিটের টিভি শো বানানোর দিকে ঝুঁকছেন প্রযোজকরা। পিঙ্ক এর নাম দিয়েছেন কিউবি (QB) অর্থাৎ কুইক বাইটসের সংক্ষিপ্ত রূপ। তিনি আরও বলেন, একটা সময় আসবে যখন পাঁচ মিনিটের টিভি সিরিজের জন্য এমি পুরষ্কার পেলেও অবাক হব না।

জনপ্রিয় হবে ভেগান ডায়েট

নতুন বছরে মাংসের জনপ্রিয়তা কমে যাবে আর ভেগান খাবারের জনপ্রিয়তা বাড়বে। মাংস খাওয়ার কারণে যে পরিমাণ প্রাণী হত্যা করা হয় তাতে প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট হয়। এছাড়াও মাংসে উচ্চ মাত্রার চর্বি ও প্রোটিন থাকায় অতিরিক্ত মাংস খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্যও ক্ষতিকর। এসব নানা কারণে মানুষ ভেগান খাদ্যাভ্যাসের দিকে ঝুঁকছে।

২০১৯ এর ট্রেন্ড

ভেগান খাদ্যাভ্যাস পুরোপুরি শাকসবজি নির্ভর। এতে মূলত বিভিন্নরকমের বাদাম, বীজ, শিম ইত্যাদি খাওয়া হয়। নতুন বছরে এমন খাদ্যাভ্যাস বাড়বে বলেই জানাচ্ছেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা।

দ্রুত ওজন কমানো নয়, ব্যায়ামের লক্ষ্য ফিটনেস

দ্রুত ওজন কমানোর লক্ষ্যে কঠিন সব ব্যায়াম করার দিন শেষ হয়ে যাচ্ছে। দীর্ঘসময় ধরে কঠিন শারীরিক কসরত করাটাকে অনেকেই শাস্তিমূলক বলেও মনে করছেন। নতুন বছরে এধরণের ব্যায়ামের চাইতে ধীরে কিন্তু কার্যকরী ব্যায়াম জনপ্রিয় হবে।

২০১৯ এর ট্রেন্ড

এ ধরণের ব্যায়ামে ধীরে ধীরে হৃদস্পন্দন বাড়ানো ও যার যার শারীরিক গঠন অনুযায়ী শরীরের নির্দিষ্ট অংশের পেশি গঠনে নজর দেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ