মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:৪১ পূর্বাহ্ন

চিরুনি অভিযান নিয়ে মেয়র আতিকের হুশিয়ারি

চিরুনি অভিযান নিয়ে মেয়র আতিকের হুশিয়ারি

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত ডেস্ক:এডিস মশা নির্মূলের লক্ষে পরিচালিত ‘চিরুনী অভিযানে’ কেউ অসহযোগিতা করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।রোববার দুপুরে গুলশান-২ নম্বর মার্কেট প্রাঙ্গনে ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ আয়োজিত ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা কার্যক্রম অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ হুশিয়ারি দেন।ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ‘চিরুনি অভিযান’ চলাকালে ডিএনসিসির পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের অনেক বাড়ি ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না, অনেকে সময়ক্ষেপণ করেন। এর ফলে অনেক ক্ষেত্রে অভিযান পরিচালনায় ব্যাঘাত ঘটছে।তিনি বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে ইতিমধ্যে সব শ্রেণি-পেশার মানুষ এগিয়ে এসেছেন। তবে আরও এগিয়ে আসতে হবে। ডিএনসিসির সব বাড়ি, প্রতিষ্ঠান, খোলা জায়গা, পরিত্যক্ত ভবন ইত্যাদি ১০ দিনব্যাপী চলমান চিরুনি অভিযানের আওতায় আসবে। কিছুই বাদ যাবে না।তবে পরবর্তীতে এটি চালিয়ে যাওয়াই মূল চ্যালেঞ্জ এবং এজন্য বছরের ৩৬৫ দিনই এডিস মশা নিধনে কাজ করতে হবে বলে তিনি মনে করেন।আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা শীঘ্রই ইন্টিগ্রেটেড ভেক্টর ম্যানেজমেন্টের (আইভিএম) পরিকল্পনা প্রকাশ করব। মশক নিধনের যন্ত্রপাতি আধুনিকীকরণ, মশক নিধনকর্মীদের প্রশিক্ষণ প্রদান, কীটনাশক প্রয়োগের পরে মশা, অন্যান্য কীটপতঙ্গ এবং সর্বোপরি পরিবেশের ওপর প্রভাব ইত্যাদি গবেষণা এবং ভবিষ্যতের জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ এ পরিকল্পনার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত থাকবে।অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আফসার উদ্দিন খান এবং ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ সভাপতি পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়।প্রসঙ্গত, মশক নিধনে চিরুনি অভিযানের লক্ষ্যে প্রতিটি ওয়ার্ডকে ১০টি ব্লকে এবং প্রতিট ব্লককে ১০টি সাব-ব্লকে ভাগ করা হয়। প্রতিদিন প্রতিটি ওয়ার্ডের ১টি করে ব্লক থেকে এডিস মশার লার্ভা ধ্বংস এবং পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ