রবিবার, ২৫ অগাস্ট ২০১৯, ০৬:৩১ পূর্বাহ্ন

ছেলেধরা গুজব সিলেটে: আইন হাতে তুলে নেবেন না!

ছেলেধরা গুজব সিলেটে: আইন হাতে তুলে নেবেন না!

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত ডেস্ক:সম্প্রতি ছেলে ধরা সন্দেহে ‘গণপিটুনি’ দিয়ে নিরহ-নিরপরাধ লোক হতাহতের ঘটনায় সিলেট ও সুনামগঞ্জে সচেতনতামূলক প্রচারণা মাইকিং করেছে প্রশাসন। রোববার স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা শহরে প্রচারণা চালানো হয়। গুজবে কান দিয়ে ‘গণটিপুনি’ দিয়ে আইন নিজের হাতে তুলে না নেওয়ার জন্য আহবান জানানো হয়েছে।
ফেঞ্চুগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, থানা প্রশাসন থেকে জনসচেতনতায় জনগনের দৃষ্টি আকর্ষণে মাইকিং করানো হয়েছে। রোববার বিকেল ৩টা থেকে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে এ মাইকিং চলছে। জানা যায়, সাম্প্রতিক সময়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় অপরিচিত ব্যাক্তিকে দেখে ছেলেধরা সন্দেহে গুজব রটিয়ে গণপিটুনি দিচ্ছে এক শ্রেনীর উৎসুক জনতা, যা একটি ফৌজদারী অপরাধ।
ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলাবাসীর জনসচেতনতায় দৃষ্টি আকর্ষণে এ মাইকিং করানো হচ্ছে বলে জানালেন ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাসার মোহাম্মদ বদরুজ্জামান। এ ব্যাপারে ওসি জানান, গণপিঠুনি একটি ফৌজদারী অপরাধ। অপরিচিত কাউকে সন্দেহ হলে ফেঞ্চুগঞ্জ থানায় যোগাযোগ অথবা ৯৯৯ এ কল করার জন্য ফেঞ্চুগঞ্জের নাগরিকদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন তিনি।
গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, গুজবে কান দিয়ে ছেলেধরা সন্দেহে কাউকে গণপিটুনি না দিতে গোলাপগঞ্জ থানা উদ্যোগে মাইকিং করা হয়েছে। রোববার বিকেলে উপজেলাজুড়ে এ মাইকিং করানো হয়। মাইকিংয়ে বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় অপরিচিত ব্যক্তিকে দেখে ছেলেধরা সন্দেহে একশ্রেণির উৎসুক জনতা গুজব রটানোর মাধ্যমে গণধোলাই দিচ্ছে। গোলাপগঞ্জ থানা এলাকায় এ সকল পরিস্থিতিতে গুজবে কান না দিয়ে তৎক্ষনাৎ থানায় যোগাযোগ করার জন্য জনসাধারণের প্রতি অনুরোধ করা হয়।
আরো বলা হয়, গুজব দ্বারা প্রভাবিত হয়ে গণপিটুনি দেয়া একটি ফৌজদারী অপরাধ। জরুরি প্রয়োজনে জনসাধারণ ৯৯৯ নম্বরে কল দিয়ে সহায়তা নিতে পারবেন।
প্রসঙ্গত, দেশের বিভিন্ন এলাকায় ছেলেধরা সন্দেহে ব্যাপকভাবে গণপিটুনির ঘটনা ঘটছে। গত কয়েকদিনে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে রাজধানীসহ সারা দেশে চারজন নিহত হয়েছেন। এছাড়া চার নারীসহ আহত হয়েছেন পাঁচজন।
জগন্নাথপুর : ‘গুজব ছড়াবেন না, আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর থানা পুলিশের উদ্যোগে সতর্কীকরণ প্রচারণা শুরু হয়েছে। রোববার জগন্নাথপুর পৌরশহরসহ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মাইকিং করে এমন প্রচারনা করা হয়। পুলিশ জানায়, পদ্মা সেতুর জন্য মানুষের মাথা ও রক্ত লাগবে এই গুজবকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেলেধরা সন্দেহে গনপিটুনিতে বেশ কয়েকজন নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, কোন প্রকার গুজবে কান না দেয়ার জন্য জনস্বার্থে আমরা মাইকিং করে প্রচারনা শুরু করেছি। তিনি বলেন, গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে ছেলেধরা সন্দেহে কাউকে গনপিটুনি দিয়ে হত্যা করা ফৌজদারী অপরাধ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ