শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ১১:২৫ অপরাহ্ন

‘জীবনের শেষ নির্বাচনের’ ইশতেহারে কাঁদলেন কামরান

‘জীবনের শেষ নির্বাচনের’ ইশতেহারে কাঁদলেন কামরান

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত ডেস্ক :  নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণার সময় আবেগাপ্লুত হয়ে কেঁদে ফেললেন সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ-মনোনীত প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরান। কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, ‘এটাই আমার শেষ নির্বাচন।’ নির্বাচন নিয়ে গঠনমূলক সংবাদ পরিবেশনে সাংবাদিকদের আহ্বান জানান তিনি।

আজ বুধবার দুপুরে সিলেটের মির্জা জাঙ্গাল এলাকার একটি হোটেলে ‘এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ, এগিয়ে যাবে সিলেট’ স্লোগান নিয়ে ৩৩ দফা নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন বদরউদ্দিন আহমদ কামরান। ইশতেহারে সিলেটকে দেশের প্রথম ডিজিটাল নগরী গড়ে তোলার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

৩৩ দফার লিখিত ইশতেহার তুলে ধরা শেষে আবেগাপ্লুত কামরান বলেন, ‘আশা করি, উৎসবমুখর নির্বাচন হবে। আগামী নির্বাচন পর্যন্ত হয়তো আমি বেঁচে নাও থাকতে পারি। নির্বাচিত হলে মৃত্যুর আগে ভাবতে পারব, সিলেটের মানুষ আমাকে ভালোবেসে রায় দিয়েছে।’ সাংবাদিকদের সহায়তা চেয়ে কামরান বলেন, সাংবাদিকের তাঁদের লেখনীর মাধ্যমে কাউকে ওঠাতে পারে। সাংবাদিকদের লেখনীর মাধ্যমে সহায়তা চান তিনি।

নির্বাচিত হলে আগামী পাঁচ বছরই কি নতুন করারোপ করা হবে না? প্রথম আলোর এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের এই প্রার্থী বলেন, সিটি করপোরেশনের করারোপের ক্ষেত্র একটি নীতিমালা রয়েছে। নীতিমালার বাইরে কোনো করারোপ করা হবে না।

ইশতেহারে কামরান বলেন, সিলেটকে শতভাগ নিরক্ষরমুক্ত করতে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। নগর এলাকায় প্রয়োজনীয়সংখ্যক বিশ্বমানের স্কুল, কওমি মাদ্রাসা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হবে।

প্রতি মাসে নগরীতে ওয়ার্ডভিত্তিক মেডিকেল ক্যাম্পসহ স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে বিশ্বমানের নগর ক্লিনিক স্থাপন করা হবে।

বিদ্যুৎ-বিভ্রাট থেকে নগরবাসীকে বাঁচাতে পুরো নগরে পাতাল বিদ্যুৎ লাইন স্থাপন করা হবে।

নগরীকে যানজটমুক্ত রাখতে সব রাস্তা প্রশস্তকরণ, একাধিক স্ট্যান্ড, আধুনিক বাসস্ট্যান্ড, ট্রাক টার্মিনালসহ ফ্লাইওভার নির্মাণ করার পরিকল্পনার কথাও তুলে ধরেন তিনি।

ফুটপাত হকারমুক্ত করার পাশাপাশি চারটি হকার মার্কেট করা হবে। এ ছাড়া সাপ্তাহিক ছুটির দিনে বিশেষ মার্কেটের ব্যবস্থা করা হবে। লালদীঘি মার্কেট ভেঙে সেখানে বহুতল ভবন নির্মাণের পরিকল্পনার কথাও জানালেন তিনি। ওই ভবনে স্বল্প আয়ের বিভিন্ন পেশাজীবীদের জন্য স্বল্পমূল্যে আবাসনের ব্যবস্থা করা হবে।

জলাবদ্ধতা নিরসনে জন্য খাল উদ্ধার করে খনন ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন করার কথাও জানালেন তিনি। সুরমা নদী খননে সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে সুরমা নদী খননের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গ্যাসসংযোগ চালুর ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়ার বিশেষ পরিকল্পনা তুলে ধরতে গিয়ে কামরান বলেন, গ্যাসের সংযোগ বন্ধ থাকায় আবাসন ব্যবসা স্থবির হয়ে আছে। নতুন বাসাবাড়িতে গ্যাসসংযোগ না থাকায় জনগণকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। নতুন গ্যাসসংযোগ চালুর উদ্যোগ নেওয়ার কথাও তুলে ধরলেন তিনি।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ