মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:১১ পূর্বাহ্ন

তরুণদের জন্য মাস্টার প্লান চান তন্ময়

তরুণদের জন্য মাস্টার প্লান চান তন্ময়

ছবি: সংগৃহীত

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত ডেস্ক:তরুণ প্রজন্মকে মাদকাসক্তি থেকে ফিরিয়ে আনতে আইন সংশোধনীর পাশাপাশি মাস্টার প্লান চাইলেন সাংসদ শেখ সারহান নাসের তন্ময় (শেখ তন্ময়)। তিনি বলেছেন, ‘আমাদের পাঁচ কোটি তরুণের মধ্যে এক কোটি তরুণ মাদকাসক্ত। তাদের ফিরিয়ে আনতে হবে। এজন্য মাস্টার প্লান দরকার।’

বুধবার (৬ মার্চ) সন্ধ্যায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের উপর আনিত ধন্যবাদ প্রস্তাবের উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এই আহ্বান জানান।

শেখ তন্ময় বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মানবতাবাদের ইতিহাসে অন্যতম মানবতাবাদী নেতা। তিনি কোনো মহাদার্শনিক ছিলেন না, মহাপণ্ডিতও ছিলেন না। কিন্তু মহাদর্শানিক বা পণ্ডিতরা যা করতে পারেননি তা করতে পেরেছেন। যার প্রমাণ ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ইউনেস্ক কর্তৃক ওয়াল্ড ডকুমেন্টারির অংশ হিসেবে স্বীকৃতি।’

সংসদে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনের সময় আমি যখন এলাকায় গেছি, আমার আলাদা কিছুই বলতে হয়নি, আলাদা কিছুই করতে হয়নি। জননেত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশে যে উন্নয়নমূলক কর্মসূচি গত ১০ বছরে দিয়েছেন। যার সুফল প্রত্যন্ত গ্রামের মানুষ পাচ্ছেন। যার জন্য আমার ব্যক্তিগত কোন অর্জন নেই, পুরো অর্জনটাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।’

তরুণ প্রজন্ম প্রসঙ্গে বলেন, ‘মার্চে কী, কেন এর গুরুত্ব শিখতে চাই। জানতে চাই ১৯৭১ সালে ৭ মার্চে যেভাবে তরুণ প্রজন্ম উদ্ভুদ্ধ হয়ে স্বাধীনতা সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল, আমরা আজকের এই দিনে ২০১৯ সালে যেন তাদেরকে (তরুণদের) নিয়ে স্বাধীনতার চেতনায় ফিরে আসতে পারি, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে কাজ করে যেতে পারি।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের সবচেয়ে বড় সমস্যা মাদক ও কর্মসংস্থান। কর্মসংস্থান নিয়ে বিভিন্ন সময় অনেকে অনেক জ্ঞানবুদ্ধি দিয়ে থাকেন, বিভিন্ন টক শোতে। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়, যার মাধ্যমে প্রযুক্তিতে একটি বিকাশ ঘটতে যাচ্ছে। সেই সময়টিতে আমাদের দেশে প্রায় এক কোটি তরুণ মাদকের সাথে যুক্ত আছে।’

তন্ময় বলেন, ‘যারা মাদক ব্যবসা করে, আমার মনে হয় তাদের কোনোভাবেই নরম করে দেখলে চলবে না। যারা সেবনকারী আছে, তারা তো আমাদেরই ভাই-বোন।’

‘জাপান এই দেশে বিনিয়োগ করতে ইচ্ছুক। জাপানে তরুণ প্রজন্মের সংখ্যা কমে যাচ্ছে। যার জন্য এখানে বিনিয়োগ করতে চাচ্ছে। কিন্তু যেখানে পাঁচ কোটি তরুণের মধ্যে এক কোটি তরুণ মাদকাসক্ত, আমাদের মনে হয় একটি পলিসি আনা দরকার, মাস্টার প্লান দরকার। আইনের সংশোধনী দরকার।’

তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন আন্দোলনের সময় একটি অশুভশক্তি আমাদের তরুণ যুবকদের বিভ্রান্তির মধ্যে নিয়ে যায়। সব সময় সরকারবিরোধী একটা মনোভাব তাদের মধ্যে থাকে। আজকে ছুড়ি বা বন্দুক-পিস্তল নিয়ে যতটা না ক্রাইম হচ্ছে, তার থেকে বেশি হচ্ছে সাইবার ক্রাইম।’

তন্ময় বলেন, ‘তরুণ প্রজন্ম মাঝে মাঝে রাজপথে নেমে আসে। আন্দোলন সংগ্রাম সেটা আমাদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য, সেটাকে স্বাগত জানাই। কিন্তু যখন দেখি তথ্য প্রযুক্তির খারাপ ব্যবহার, তখন আমাদেরকে প্রশ্নবিদ্ধ করে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ