বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০১:১৫ পূর্বাহ্ন

“তিন তালাক বন্ধের বিল উঠেছে ভারতের রাজ্যসভায়”

“তিন তালাক বন্ধের বিল উঠেছে ভারতের রাজ্যসভায়”

নিউজটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:ভারতে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে প্রচলিত তিন তালাক রীতি বন্ধে বিল নিয়ে ভিন্ন মাত্রার এক উত্তেজনা বিরাজ করছে রাজনৈতিক মহলে। এ রীতি বন্ধে আইন করার জন্য আজ রাজ্যসভায় বিল উত্থাপন করেছেন আইনমন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ। এর আগে খুব সহজেই লোকসভায় বিলটি পাস হয়েছে। সেখানে সরকারের ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকার ফলে কণ্ঠভোটে পাস হয়েছে বিল। কিন্তু রাজ্যসভায় বিলটি পাস হওয়া অতোটা সহজ হবে না বলেই মনে হচ্ছে। এখানে ভীষণ বিরোধিতার মুখে পড়বে সরকার। তাই আজ রাজ্যসভায় দলীয় সব এমপিকে উপস্থিতি নিশ্চিত করতে নির্দেশনা দিয়েছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) নেতা অমিত শাহ। নিজ নিজ দলের এমপিদের প্রতি একই রকম নির্দেশনা দিয়েছে বিরোধী দল কংগ্রেস ও তৃণমূল কংগ্রেস সহ অন্য দলগুলো। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ।

রাজ্যসভায় বিলটি উত্থাপনের আগে মঙ্গলবার সকালেই বিজেপির পার্লামেন্টারি পার্টির বৈঠক হয়েছে। সেখানে অমিত শাহ বলেছেন, তিন তালাক বিল ভোটে দেয়ার সময় রাজ্যসভায় দলীয় সব এমপিকে অবশ্যই উপস্থিত থাকতে হবে। বিলটিকে কেন্দ্র করে রাজ্যসভায় বেশ হট্টগোল হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নেতৃত্বাধীন সরকারের আনা এই বিলের বিরোধিতা করবে বিরোধী দলগুলো। এ জন্যই কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস সহ বিরোধী দলগুলো তাদের এমপিদের অবশ্যই রাজ্যসভায় উপস্থিত থাকার নির্দেশনা দিয়েছে। এ জন্য এ দুটি দল তাদের এমপিদের আগে থেকেই তাগিদ দিয়েছে। ওদিকে বিহারে বিজেপির মিত্র জনতা দল ইউনাইটেডও (জেডিইউ) বেঁকে বসেছে। তারা তিন তালাক বিষয়ক বিলের কিছু বিধির বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। তবে বিজু জনতা দল (বিজেডি) ঘোষণা দিয়েছে তারা পার্লামেন্টে সমর্থন দেবে এই বিলে।

তিন তালাক বিলে মুসলিম পুরুষদের তাৎক্ষণিক তালাক দেয়ার যে রীতি তাকে অপরাধ হিসেবে প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রথমে লোকসভায় এই বিলটি কণ্ঠভোটে পাস হয়েছে। কারণ, লোকসভায় বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট সংখ্যাগরিষ্ঠ। এখন এই বিলটি উত্থাপন হচ্ছে রাজ্যসভায়। বিরোধী দলগুলো থেকে বিরোধিতা থাকা সত্ত্বেও এনডিএ সরকার বলছে, তারা লিঙ্গ সমতা ও ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে চায়। সে লক্ষ্যে এটা হলো একধাপ এগিয়ে যাওয়া। লোকসভায় বিলটি উত্থাপনের সময়ে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাব বলেছেন, এই বিলটি কোনো ধর্মের বিরুদ্ধে নয়। তবে এটা হলো দেশের সব নাগরিকের সমান অধিকার নিশ্চিত করার বিষয়। তিনি উল্লেখ করেন, অনেক ইসলামিক দেশ এরই মধ্যে তিন তালাক রীতি বাতিল করেছে। মে মাসে দ্বিতীয় দফায় শপথ নেয়ার পর নরেন্দ্র মোদি নেতৃত্বাধীন সরকার ভারতে প্রথম এ বিলটির খসড়া উত্থাপন করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ