বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ০২:১৭ পূর্বাহ্ন

তৃণমূল নেতাদের অভিযোগ মনোযোগ দিয়ে শুনছেন প্রধানমন্ত্রী

তৃণমূল নেতাদের অভিযোগ মনোযোগ দিয়ে শুনছেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত ডেস্ক : খোশমজাজে টানা দুই দিন থেকে গণভবনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কথা শুনছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। সে ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবারও সারাদেশে বিভিন্ন মনোনয়ন প্রত্যাশীদদের কথা শোনেন তিনি।

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়ে না পাওয়ার গুজবে বঞ্চিতরা দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কথা শুনছেন এবং অভিযোগুলো নোট করছেন। পাশাপাশি নৌকা ও জোট থেকে যারা মনোনয়ন পাবেন তাদের বিজয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার নির্দেশও দিচ্ছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২২ নভেম্বর) বিকেলে সারাদেশের বিপুল সংখ্যক মনোনয়ন প্রত্যাশী গণভবনে গিয়ে কথা বলেন। গতকাল বুধবারও (২১ নভেম্বর) রাতে মনোনয়ন প্রত্যাশী গাইবান্ধা-৪ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ দেখা করেন।

তিনি  বলেন, ‘নেত্রী আমাদের কথা শুনেছেন। আমাদের কথার পরিপ্রেক্ষিতে আশ্বাস দিয়েছেন। তিনি বিষয়গুলো বিবেচনায় নেবেন। পেক্ষিতে আশ্বাস দিয়েছেন। আমি বর্তমান এমপি হিসাবে আমার কথা তুলে ধরেছি।’

ঝিনাইদহ-৩ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী টিএম আজিবর রহমান মোহন  বলেন, ‘আমি জাতির জনকের সহকর্মী। বাবা মুক্তিযোদ্ধা ও বঙ্গবন্ধুর সহকর্মী ছিলেন। আমি আওয়ামী পরিবারের সন্তান। দীর্ঘ তিন যুগ ধরে রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত আছি। আমি গতবারও মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলাম।’

তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে বলেন, ‘আমরা লোকমুখে শুনতে আপনি একজনকে মনোনয়ন দেওয়ার চিন্তাভাবনা করছেন। কিন্তু তিনি মনোনয়ন পেলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা হুমকির মুখে পড়বে এবং আওয়ামী বিরোধী চক্রের হাত শক্তিশালী হবে। বাকিটা আপনি বিবেচনা করে আপনার বিবেচনায় যোগ্যকে নৌকা দেবেন। এটা আমরা আশা করি।’

এ সময় ওই আসনের বর্তমান এমপি নবী নেওয়াজসহ অন্যান্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরা উপস্থিত ছিলেন

এদিকে বৃহস্পতিবারও নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি অ্যাড. মালেক শেখ, শাহনেওয়াজ পাটোয়ারি, অ্যাড. সিরাজসহ অনেক মনোনয়ন প্রত্যাশী দেখা করেন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমবেতদের উদ্দেশে কথাও বলছেন। সেখানে উপস্থিত থাকা একাধিক সূত্র থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

সন্ধ্যার সময় মনোনয়ন চেয়ে বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কায় থাকা অনেকে গণভবনে যান। একসঙ্গে এত নেতাকর্মীর আগমনের খবর পেয়ে শেখ হাসিনাও নিচে নেমে আসেন। সমবেতরা জড়ো হন ব্যাংকুয়েট হলে। শেখ হাসিনা কার কী বক্তব্য আছে তা শুনতে চান। এ সময় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও উপস্থিত ছিলেন।

জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম সোলায়মান আলী বলেন, ‘আমি নেত্রীকে বলেছি আমাদের বর্তমান যে এমপি তার ব্যাপারে জনগণের দৃষ্টিভঙ্গি কী সেটা আপনি জানেন। সুতরাং এ বিষয়ে বেশিকিছু বলতে চাই না। তৃণমূলের সাংগঠনিক অবস্থা বিবেচনা করে একজন যোগ্য মানুষকে মনোনয়ন দিবেন সেটা আমরা আশা করি।’

সূত্র আরও জানায়, একে একে অনেকের বক্তব্য শেষে শেখ হাসিনা সবার উদ্দেশে বলেন, ‘এক একটি আসনে অনেক প্রার্থী। তারপর নির্বাচনী জোটও আছে। জরিপ অনুসারে সবখানে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। নির্বাচনী জোটের কারণেও কিছু আসন ছাড়তে হবে। তাই কেউ মনোনয়নবঞ্চিত হলেও সবাইকে নৌকা ও জোটের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে হবে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ