শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ১২:৪৫ অপরাহ্ন

নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমা ঢাকায়

নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমা ঢাকায়

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত ডেস্ক:নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমা ৪ দিনের সফরে মঙ্গলবার ঢাকা এসেছেন। সফরকালে তিনি বাংলাদেশের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিদর্শনসহ অর্থনৈতিক খাতের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

আমিরাত এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে বিকাল ৫টা ২০ মিনিটে তিনি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন তাকে অভ্যর্থনা জানান। রানী ম্যাক্সিমা আজ সন্ধ্যা ৭টায় জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। ২০০৯ সাল থেকে তিনি জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের ইনক্লুসিভ ফাইন্যান্স ফর ডেভেলপমেন্টবিষয়ক স্পেশাল অ্যাডভোকেট হিসেবে কাজ করছেন।

সফরকালে রানী ম্যাক্সিমা আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে নারীদের সেবাপ্রাপ্তি যেন সহজ হয়, সে বিষয়ে বিশেষ জোর দেবেন। নারীরা যদি তাদের বেতনভাতা ডিজিটাল (প্রযুক্তিগত) মাধ্যমে এবং নারী উদ্যোক্তারা বিশেষ সহায়তা পান তাহলেই আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে সেবাপ্রাপ্তি সহজতর হবে। ডিজিটাল পেমেন্ট প্লাটফর্মের সঙ্গে জাতীয় পরিচয়ের যোগসূত্র কেন থাকা প্রয়োজন, সে সম্পর্কেও কথা বলবেন তিনি। আলোচ্যসূচিতে থাকছে দ্য বাংলাদেশ ন্যাশনাল স্ট্র্যাটেজি ফর ইনক্লুসিভ ফাইন্যান্স (এনএফআইএস) বা উন্নয়নের জন্য অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নে জাতীয় কৌশলপত্র।

আজ সকালে তিনি আগারগাঁওয়ে আইডিবি ভবনে ঢাকায় জাতিসংঘ সদর দফতর পরিদর্শন এবং সেখানে বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগীর প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। এরপর তিনি নরসিংদীর পলাশে জিন্দারি ইউনিয়ন পরিষদ ও টাঙ্গাইলে একটি বুটিক শপ পরিদর্শন করবেন। বৃহস্পতিবার তিনি বেসরকারি খাতের প্রতিনিধিদের সঙ্গে গোলটেবিলে যোগ দেবেন।

এছাড়া তিনি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গেও বৈঠক করবেন। বিকালে তিনি বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। শুক্রবার সকালে তিনি ঢাকা ত্যাগ করবেন।
রানী ম্যাক্সিমা ইউএনএসজিএসএ হিসেবে নিযুক্ত হন ২০০৯ সালে। পদাধিকারবলে তিনি জাতিসংঘ মহাসচিবকে পরামর্শ দিয়ে থাকেন এবং বিশ্বব্যাপী আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে সবার জন্য নিরাপদে ও সুলভে সেবাপ্রাপ্তি নিশ্চিতে কাজ করে থাকেন। বিশেষ করে নিু আয়ভুক্ত গোষ্ঠী, ছোট ও মাঝারি উদ্যোক্তারা তার কাজে অগ্রাধিকার পেয়ে থাকে। ২০১১ সাল থেকে তিনি জি ২০ গ্লোবাল পার্টনারশিপ ফর ফাইন্যান্সিয়াল ইনক্লুশনের সম্মানিক পৃষ্ঠপোষক।

ঢাকায় মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট : মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট ড. হিলদা হেইনি ‘ঢাকা মিটিং অব দ্য গ্লোবাল কমিশন অন এডাপটেশন (জিসিএ)’ সম্মেলনে যোগ দিতে ২ দিনের সফরে মঙ্গলবার ঢাকায় পৌঁছেছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপদেশটির প্রেসিডেন্টকে হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ সকালে সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন। জিসিএ’র বর্তমান সভাপতি বান কি মুন ‘ওয়ে ফরওয়ার্ড অ্যান্ড নেক্সট স্টেপ টুওয়ার্ডস ক্লাইমেট চেঞ্জ এডাপটেশন’ শীর্ষক অধিবেশনে বক্তব্য রাখবেন। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একই হোটেলে মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট এবং জাতিসংঘের সাবেক প্রধানের সঙ্গে বৈঠক করবেন। বৈঠকে জলবায়ু নিয়ে আলোচনা হবে।

বিকালে মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট ও বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির মধ্যে বঙ্গভবনে বৈঠক হবে। সকালে জিসিএ বৈঠকের পরে বিকালে ড. হিলদা হেইনি এবং বান কি মুনের কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প এবং খুরুসকুল বিশেষ আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শনের কথা রয়েছে। ড. হিলদা বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকা ত্যাগ করবেন।

সন্ধ্যায় ঢাকায় এলেন বান কি মুন : জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন তাকে স্বাগত জানান।
ঢাকায় জিসিএ সম্মেলনে তিনি যোগ দেবেন। ২০১১ সালে জলবায়ুবিষয়ক সম্মেলনে যোগ দিতে ঢাকায় এসেছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা ছাড়ার কথা তার।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ