সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯, ০৫:২৭ পূর্বাহ্ন

‘প্রধানমন্ত্রী লম্বা বক্তৃতা দিলেন, বিশেষ সমাধান পাইনি’

‘প্রধানমন্ত্রী লম্বা বক্তৃতা দিলেন, বিশেষ সমাধান পাইনি’

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সাড়ে তিন ঘণ্টার সংলাপে মাত্র একটি বিষয়েই সমাধান মিলেছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, আমরা তিন ঘণ্টা সেখানে (গণভবন) ছিলাম। আমরা আমাদের দাবি তুলে ধরেছি, অভিযোগের কথা, সেগুলো তুলে ধরেছি। সবার কথা শোনার পর প্রধানমন্ত্রী লম্বা বক্তৃতা দিলেন। বিশেষ কোনো সমাধান আমরা পাইনি। কেবল সভা-সমাবেশের বিষয়েই তিনি একটি ভালো কথা বলেছেন।

বৃহস্পতিবার (১ নভেম্বর) রাত পৌনে ১২টার দিকে বেইলি রোডে নিজ বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ড. কামাল।

এসময় তার পাশে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, ঐক্যফ্রন্ট নেতা সুলতান মো. মনসুরসহ অন্যরা।

এরপর ড. কামাল হোসেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে গণফোরামের নির্বাহী সম্পাদক সুব্রত চৌধুরীকে লিখিত বক্তব্য পাঠ করার আহ্বান জানান।

সুব্রত চৌধুরী লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমরা সাড়ে তিন ঘণ্টা ছিলাম। শুরুতেই ড. কামাল হোসেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে সূচনা বক্তব্য রেখেছেন। এরপর বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জোটের পক্ষ থেকে সাত দফা দাবি তুলে ধরেন। এরপর ঐক্যফ্রন্টের অন্যান্য নেতারাও আমাদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রেখেছেন।

সুব্রত চৌধুরী আরও বলেন, আমাদের বক্তব্য শোনার পর প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, সভা-সামাবেশ ও রাজনৈতিক কর্মসূচিতে কোনো ধরনের বাধা থাকবে না। এসব সভা-সমাবেশে সহযোগিতা করার জন্যও নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি বলেন, আমরা আমাদের পক্ষ থেকে বিরোধী দলগুলোর কর্মীদের গণগ্রেফতার ও তাদের বিরুদ্ধে গায়েবি মামলা দায়েরের বিষয়গুলো তুলে ধরেছি। তারা বলেছেন, মামলাগুলোর তালিকা দেন, আমরা বিবেচনা করব। সংলাপে আমাদের পক্ষ থেকে উত্থাপিত দাবি-দাওয়া নিয়ে ভবিষ্যতে আলোচনা অব্যাহত থাকবে বলেও প্রধানমন্ত্রী বলেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ