মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন

বিএনপির মুখে বিচারহীনতার কথা শোভা পায় না : ওবায়দুল কাদের

বিএনপির মুখে বিচারহীনতার কথা শোভা পায় না : ওবায়দুল কাদের

ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত ডেস্ক:আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, এখন পর্যন্ত তিনজন আসামি গ্রেফতার হয়েছে। বাকিদেরও গ্রেফতার করা হবে। যারা অপরাধ করেছে তাদের সবাইকেই বিচারের আওতায় আনা হবে। তবে সবকিছু রাতারাতি সম্ভব হয় না। অপরাধী অপরাধ করে পালিয়ে থাকার চেষ্টা করবে, এটাই স্বাভাবিক। রিফাত হত্যায় কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

‘একাত্তরের ভূমিকা নিয়ে সমালোচনা থাকলেও জামায়াতের বর্তমান অবস্থান নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই’- অলি আহমদের এমন বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আসলে বাস্তবতা কী, সেটা দেখতে হবে সরেজমিন। তারা পরিবর্তিত কোনো রূপ নিয়ে এসেছে কি না, এটা তাদের কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে প্রমাণিত হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে, কতটা করে, সেটা তাদের কার্যক্রমের ওপর নির্ভর করবে। এর জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

কর্নেল অলির নতুন জোট কেমন হবে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, আসুক, গণতান্ত্রিক রাজনীতিতে আসুক। নতুন প্লাটফর্মকে আমরা অবশ্যই স্বাগত জানাব। আমরা এর বিরুদ্ধে নই। নতুন প্লাটফর্ম এসে রাজনীতিটা কী করছে, সেটার ওপর নির্ভর করছে আসলে তারা কী চায়।

এ সময় আওয়ামী লীগের সদস্য সংগ্রহের জন্য জেলা-উপজেলায় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়ে দলটির সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা সদস্য সংগ্রহ শুরু করে দিয়েছি। নতুন সদস্য সংগ্রহ করা হবে, আর যারা আগে আছেন তাদের নবায়ন করতে হবে। পার্টির সভাপতির নির্দেশক্রমে আমি সব জেলা-উপজেলার নেতাদের সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন বই সংগ্রহ করার নির্দেশনা দিচ্ছি।

এবারের সদস্য সংগ্রহের ক্ষেত্রে যুদ্ধাপরাধী-জামায়াত পরিবারের সংশ্লিষ্টতা থাকলে নেয়া হবে কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, গত বছর আমরা সদস্য সংগ্রহ অভিযান চালিয়েছি এবং ভালোভাবে সম্পন্ন হয়েছে। শেষ হওয়া পর্যন্ত আমাদের কাছে এ ধরনের কোনো অভিযোগ পড়েনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিগত নির্বাচনে অনেক নবীন কাজ করেছে। এবার আওয়ামী লীগের নির্বাচনে যারা অংশ নিয়েছে তাদের সদস্য করব। অন্য দলের কাউকে সদস্য করার ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নেইনি। তবে যুদ্ধাপরাধীদের ছেলে- এসব বিষয় স্ট্রিক্টলি দেখা হবে। সে কি করত, তার কোনো ক্রিমিনাল অফেন্স আছে কি না, কোনো সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে যুক্ত আছে কি না, সেটাকে আমরা মূল বিবেচনায় নেব।

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, তিন বছরের মধ্যে আওয়ামী লীগের সম্মেলন করার নিয়ম। গঠনতন্ত্র মেনেই কার্যক্রম চলছে এবং এ বছরের মধ্যেই সম্মেলন হবে।

ছাত্রলীগের সংকটের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ছাত্রলীগের ব্যাপারে আমাদের চারজন সহকর্মীকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দায়িত্ব দিয়েছেন। ছাত্রলীগ সম্পর্কে আপনারা যদি কিছু জানতে চান দায়িত্বপ্রাপ্তরা তার জবাব দেবেন।

তিনি জানান, ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার দেখভালের দায়িত্বে থাকা আওয়ামী লীগের এই চার নেতা হলেন : যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিম ও বিএম মোজাম্মেল।

যদি এই চার নেতা ব্যর্থ হন তাহলে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে কী পদক্ষেপ নেয়া হবে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, তারা সফল কি ব্যর্থ তার বিচার প্রধানমন্ত্রী করবেন। আমি নিজেও এ বিষয়ে খুব বেশি একটা জানি না। অসুস্থ হয়ে বিদেশে ছিলাম। দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা ভালো বলতে পারবেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক আবদুস সবুর, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মারুফা আক্তার পপি, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ