বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:১১ অপরাহ্ন

ভোট কারচুপির সাধারণ সূত্র উদ্ভাবন করেছে আ’লীগ: রিজভী

ভোট কারচুপির সাধারণ সূত্র উদ্ভাবন করেছে আ’লীগ: রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ফাইল ছবি

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত ডেস্ক : নির্বাচনকে কীভাবে আওয়ামী লীগের পক্ষে নেয়া যায়, কীভাবে কারচুপি করা যাবে-সে বিষয়ে নীলনকশার সাধারণ সূত্র উদ্ভাবন করে মাঠপর্যায়ের পুলিশ ও র‌্যাবের কাছে পাঠানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, জনবিচ্ছিন্ন অবৈধ সরকার সারা দেশে ধানের শীষের পক্ষে গণজোয়ার দেখে পুলিশকে দিয়ে নির্বাচনে কারচুপির নীলনকশা বাস্তবায়ন করতে মাঠে নেমেছে। পুলিশের সদর দফতরে দিনে ও রাতে দফায় দফায় বৈঠক চলছে।

তিনি বলেন, আমাদের কাছে বিশ্বস্ত সূত্রের মাধ্যমে খবর আছে-নৌকার বিজয় ছিনিয়ে দিতে পারলে পুলিশের এসি, এডিসি, ওসিদের প্রোমোশন এবং নগদ অর্থের প্রলোভন দেয়া হচ্ছে।

এ ছাড়া আওয়ামী লীগের নির্দেশনা কার্যকরের তদারকি করার জন্য পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে মনিটরিং সেল খোলা হয়েছে। নির্বাচনকে কীভাবে আওয়ামী লীগের পক্ষে নেওয়া যায়, কীভাবে কারচুপি করা যাবে-সে বিষয়ে নীলনকশার সাধারণ সূত্র উদ্ভাবন করে মাঠ পর্যায়ের পুলিশ ও র‌্যাবের কাছে পাঠানো হয়েছে, বলেন রিজভী।

শুধ তাই নয়, দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে ছাত্রলীগের বাছাই করা ১০ হাজারের বেশি ক্যাডারকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে-ভোটের সময় ডিবি পুলিশের সঙ্গে কাজ করার জন্য।

রিজভী অভিযোগ করেন, আজ আমরা জানতে পেরেছি, ডিএমপি ডিবির জয়েন্ট কমিশনার, এডিসি ও তার অধীনস্থ এসিদের বলেছেন-যদি তারা তাদের দায়িত্বাধীন কেন্দ্রে নৌকাকে বিজয়ী করতে পারে, তবে প্রত্যেককে পাঁচ লাখ করে টাকা দেয়া হবে।

-এটি ভয়াবহ উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠার বিষয়। অনির্বাচিত আওয়ামী লীগ সরকারের অবৈধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রাখার জন্য পুলিশ প্রশাসনের দল অনুগত কর্মকর্তাদের ভূমিকায় সারা দেশের মানুষ ক্ষুব্ধ-বিক্ষুব্ধ, বলেন তিনি।

পুলিশ প্রশাসনের প্রতি আমাদের অনুরোধ জানিয়ে রিজভী বলেন, ব্যক্তিগত লাভ ও প্রলোভনে পড়ে দেশ ও গোটা জাতিকে ধ্বংস করে দেবেন না। শুধু নিজেদের স্বার্থের জন্য গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিশ্চিহ্ন করবেন না। মানুষের পাশে দাঁড়ান।

অবৈধ শাসকগোষ্ঠীর কথা শুনে মানুষের বাকস্বাধীনতাকে গলাটিপে ধরার যন্ত্র হিসেবে কাজ করবেন না। নাগরিক স্বাধীনতাকে শ্রদ্ধা করুন। আপনার দেশপ্রেম প্রমাণের সুবর্ণ সুযোগ এসেছে ৩০ ডিসেম্বর।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ