রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:০৫ অপরাহ্ন

ভোলাগঞ্জের সাদা পাথরে প্রকৃতি প্রেমিদের ভিড়

ভোলাগঞ্জের সাদা পাথরে প্রকৃতি প্রেমিদের ভিড়

নিউজটি শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক :যত দূর দৃষ্টি যায় কেবল সাদা পাথর, মাঝখানে স্বচ্ছ নীল জল আর পাহাড়ে মেঘের আলিঙ্গন। এ যেন প্রকৃতির এক স্বর্গরাজ্য। ওপারে ভারতের মেঘালয়ের চেরাপুঞ্জি থেকে নেমে আসা জলের স্রোত যার নিচে সাদা পাথর। এসব ঘিরে এক অদ্ভুত সৌন্দর্যের ক্যানভাস। পানি-পাথরের এমন খেলা উপভোগ করতে ভ্রমণপ্রেমীরা এখন ভিড় করছেন সিলেটের পর্যটন কেন্দ্র ভোলাগঞ্জ সাদা পাথরে। চেরাপুঞ্জির নিচে সাদা পাথরের স্তূপ-এ ঈদের দিন সকাল থেকেই ভিড় করেন দর্শনার্থীরা।

শহরের কোলাহল থেকে বেরিয়ে প্রকৃতির টানে সাদা পাথরে এসে পর্যটকরা হেসে-খেলে সময় কাটাচ্ছেন। পর্যটকরা এখানকার নৈসর্গিক সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ। এখানে পর্যটনের উন্নয়নে সরকারকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন পর্যটকরা।
ঢাকা থেকে বন্ধুদের সাথে সাদা পাথর বেড়াতে এসেছেন রবিউল। তিনি জানান, ঈদের ছুটি কাটাতে তারা কয়েকজন বন্ধু প্লান করে সাদা পাথর আসেন। এখানকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ তারা। তবে, থাকার কোনো ব্যবস্থা না থাকায় সন্ধ্যার আগেই ফিরতে হবে জেনে কিছুটা মন খারাপ তাদের।

ঢাকার ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ পাস আব্দুর রশিদ, তার ভাই আমেরিকা প্রবাসী মাহবুব আলমসহ পরিবারের অনেককে নিয়ে ঈদের পরদিন বিকালে আনন্দ ভ্রমণে আসেন সাদা পাথর এলাকায়। সেই দৃশ্য ফেইসবুকে লাইভ দিতেই দেশ-বিদেশে থাকা আত্মীয়, বন্ধু-বান্ধবদের মধ্যে মুহূর্তেই ঝড় উঠে। সাদা পাথর থাকতেই অজ¯্র ফোন আসে সেই আনন্দে অংশগ্রহণের বার্তা দিয়ে। তারা এখানকার প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন।
হবিগঞ্জ থেকে আসা কয়েকজন দর্শনার্থী জানান, সত্যিই মনোরম এ সৌন্দর্য উপভোগ করার মতো। পর্যটকদের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করা গেলে এটি দেশের একটি অন্যতম আকর্ষণীয় পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে উঠতে পারে বলে তাদের মন্তব্য।

স্থানীয় যুবক ফজল জানান, সবাই সাদা পাথর দেখতে আসে। তবে, সাদা পাথরে পর্যটকদের ধরে রাখতে হলে এখানে অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রয়োজন। দর্শনার্থী রজন মিয়া জানান, বিপুলসংখ্যক দর্শনার্থীর জন্য এখানে কোনো টয়লেট নেই। নেই খাবারের কোনো ব্যবস্থা। এ জন্য পর্যটকদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।
স্থানীয় কয়েকজন জানান, সাদা পাথর এলাকায় দিন দিন বাড়ছে দর্শনার্থীর সংখ্যা। পর্যটকরাও মুগ্ধ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখে। এখানে ঘুরতে আসা পর্যটকদের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানোর দাবি দীর্ঘদিনের। একইসঙ্গে এর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য টিকিয়ে রাখার উদ্যোগও আশা করেন প্রকৃতিপ্রেমীরা।

এদিকে অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে এবার ঈদে সাদা পাথরে পর্যটকের সমাগম অনেক বেশি হয়েছে এবং ঈদের ছুটি থাকা পর্যন্ত বিপুল সংখ্যক পর্যটকের সমাগম ঘটবে বলে আশা করা হচ্ছে। এজন্য সাদা পাথর বেড়াতে আসা পর্যটকদের নিরাপত্তা দিতে পুলিশ ও বিজিবি সেখানে সার্বক্ষণিকভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ তাজুল ইসলাম বলেন, ঈদের ছুটিতে সাদা পাথর দেখতে প্রচুর পর্যটকের সমাগম ঘটেছে। ভ্রমণকে নিরাপদ ও নিরবচ্ছিন্ন করতে পর্যটন এলাকায় পুলিশি টহল রয়েছে।
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিজেন ব্যানার্জী জানান, ঈদের ছুটিতে সাদা পাথরের সৌন্দর্য উপভোগ করতে প্রচুর পর্যটক এসেছেন। তাদের নিরাপত্তা দিতে পুলিশ-বিজিবির বিশেষ টিম নিয়োজিত আছে। তিনি জানান, পর্যটকদের কথা মাথায় রেখে ভোলাগঞ্জ সাদা পাথর এলাকায় বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হচ্ছে। এর অংশ হিসেবে এখানে পাবলিক টয়লেট, বসার জন্য গোলঘর ও রান্নার শেড নির্মাণ করা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ