রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:০৬ অপরাহ্ন

মৌলভীবাজারে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, স্বামী গ্রেফতার

মৌলভীবাজারে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, স্বামী গ্রেফতার

নিউজটি শেয়ার করুন

রাজনগর প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার তারাচং গ্রামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। নিহতের স্বামীর বাড়ির লোকজন মৃত্যুর ঘটনাকে আত্মহত্যা বললেও বাবার বাড়ির লোকজনের দাবি তাকে শারিরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আত্মহত্যা করতে প্ররোচিত করা হয়েছে।

এঘটনায় নিহতের বাবা আব্দুল খালিক বাদি হয়ে রাজনগর থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ নিহতের স্বামীকে গ্রেফতার করেছে। রবিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে এঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী ও মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, গত ২০১৬ সালে উপজেলার মনসুরনগর ইউনিয়নের তারাচং গ্রামের আব্দুন নূর মুহুরির ছেলে এনায়েতুর রহমান শাহিনের (৩৫) সাথে একই উপজেলার সদর ইউনিয়নের বাজুয়া গ্রামের আব্দুল খালিকের মেয়ে হালিমা বেগমের (২৪) বিয়ে হয়। তাদের একটি ১৪ মাস বয়সী কন্যা সন্তান রয়েছে। রবিবার সকালে পারিবারিক কলহের জেরে শাহিন তার স্ত্রীকে মারধর করেন। রাত সাড়ে ১২টার দিকে হালিমা সিলিংয়ের সাথে গলায় কাপড় পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে শাহিনের পরিবারের লোকজন হালিমার পরিবারকে জানায়। তারা গিয়ে মৃতের গলায় কাপড়ের কাঁটা একটি অংশ ও অপর অংশ সিলিংয়ের সাথে আটকানো অবস্থায় দেখতে পান। এসময় মৃতদেহ বিছানায় রাখা ছিল। পরে খবর পেয়ে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। এর আগেও শাহিন আরো দুটি বিয়ে করেছেন। প্রথম স্ত্রীর সাথে ২৬ দিন সংসার করেছিলেন। প্রথম স্ত্রীর সাথে বিচ্ছ্যেদের পর ২০১০ সালে উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নের মেলাগড় গ্রামে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। ২০১৬ সালে দ্বিতীয় স্ত্রীকে না জানিয়ে গোপনে হালিমাকে তৃতীয় বিয়ে করেন। এনিয়ে আদালতে দ্বিতীয় স্ত্রীর করা একটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

এদিকে হালিমাকে নির্যাতন ও আত্মহত্যায় প্ররোচিত করার অভিযোগ এনে ৩ জনের নাম উল্ল্যেখ করে অজ্ঞাত ২/৩ জনকে আসামী করে নিহতের বাবা থানায় মামলা করেছেন।

নিহতের শ্বশুর আব্দুন নূর বলেন, রবিবার সকালে পারিবারিক বিষয় নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে শাহিন স্ত্রী হালিমাকে চড় মারে। শাহিন তার স্ত্রীকে নিয়ে আলাদা থাকলে আমাদের কোনো আপত্তি ছিল না। রাতে আমাদের পশ্চিশের ঘর থেকে সে বেরিয়ে স্ত্রীর কক্ষে গিয়ে দেখতে পায় হালিমা সিলিংয়ের সাথে কাপড় পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও পুলিশকে জানিয়েছি।

নিহতের বাবা আব্দুল খালিক বলেন, আমার মেয়েকে সকালে তার স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন মারধর করেছে। আমি তাদেরকে বলেছি মেয়েকে আমার বাড়িতে পাঠিয়ে দিতে। কিন্তু রাতে মেয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে তারা আমাদেরকে খবর দেয়। তাদের শারিরিক ও মানসিক নির্যাতনে এঘটনা ঘটেছে।

রাজনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসিম বলেন, খবর পেয়ে আমরা মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছি। নিহতের বাবা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন। এঘটনায় নিহতের স্বামী শাহিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ