শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ০৪:২৫ পূর্বাহ্ন

রশিদ-সাকিব নৈপুণ্যে হায়দরাবাদের স্মরণীয় জয়

রশিদ-সাকিব নৈপুণ্যে হায়দরাবাদের স্মরণীয় জয়

নিউজটি শেয়ার করুন

স্পোর্টস ডেস্ক: আইপিএলে অসাধারণ ক্রিকেট খেলে মোস্তাফিজদের মুম্বাইয়ের বিপক্ষে জয় পেয়েছে সাকিবদের সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। মাত্র ১১৮ রানে অলআউট হওয়ার পর মনে হয়েছিল রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স সহজেই জিতে যাবে। কিন্তু মহা অনিশ্চয়তার খেলা যে ক্রিকেট সেটি আবারও প্রমাণ করলেন রশিদ-সাকিবরা। তা মাত্র ৮৭ রানে অলআউট হল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

আফগান লেগ স্পিনার রশিদ খানের অসাধারণ বোলিং আর দুর্দান্ত ফর্মে থাকা রোহিত শর্মাকে ফিরিয়ে দিয়ে সাকিবের ব্যাক থ্রোই মূলত দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখায়। তার সঙ্গে হায়দরাবাদের দুর্দান্ত বোলিং ও ফিল্ডিং দলকে লো স্কোরিং ম্যাচে ৩১ রানের বিশাল জয় এনে দেয়। ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন রশিদ খান।

এ জয়ের ফলে হায়দরাবাদের পয়েন্ট দাঁড়াল ৮-এ। রশিদ খান চার ওভারে একটি মেডেনসহ মাত্র ১১ রান দিয়ে মূল্যবান দুটি উইকেট শিকার করেন। আর সাকিব তিন ওভারে ১৬ রান দিয়ে রোহিতকে শিকার করেন।

এর আগে মঙ্গলবার রাতের লড়াইয়ে মুখোমুখি হয়েছিলেন আইপিএলে বাংলাদেশের দুই প্রতিনিধি সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমান। টানা চার ম্যাচে হেরে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস বোলাররা যেন নিজেদের আগুনে পোড়ালেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে।

মুস্তাফিজদের বোলিং তোপে পুরো বিশ ওভারও খেলতে পারেননি সাকিবরা। আট বল বাকি থাকতেই হায়দরাবাদ গুটিয়ে যায় মাত্র ১১৮ রানে।

টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামা হায়দরাবাদ বিপর্যয়ে পড়েছিল ম্যাচের শুরুতেই। পাওয়ার-প্লের ছয় ওভার শেষ না হতেই সাজঘরে ফিরে যায় দলটির প্রথমসারির চার ব্যাটসম্যান। বিদায় নেওয়ার মিছিলে ছিলেন সাকিব নিজেও।

দলের বিপদে সাকিবের কাছে প্রত্যাশা ছিল অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসনের (২৯ রান) সঙ্গে জুটি বেঁধে দলকে ভালো সংগ্রহ এনে দেয়া। তবে দুই রান করে রানআউটে কাটা পড়ে সে প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেননি বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার। যদিও ভুল বোঝাবুঝিতে সাকিবের রান আউট হবার জন্য অনেকটা দায় উইলিয়ামসনের নিজেরও।

সাকিবের ব্যর্থতার দিনে মুস্তাফিজকে মুম্বাই অধিনায়ক রোহিত শর্মা বোলিংয়ে এনেছিলেন অষ্টম ওভারে। প্রথম ওভারে বাঁহাতি পেসার দিয়েছিলেন সাত রান। পরের ওভারে চার আর তৃতীয় ওভারে দিয়েছিলেন মাত্র এক রান।

শেষ ওভারে এসে ছয় হজম করলেও পরের বলেই ইউসুফ পাঠানকে (২৯ রান) তুলে নিয়ে হায়দরাবাদের কফিনে শেষ পেরেকটা ঠুকে দেন কাটার মাস্টার। সব মিলিয়ে ৩.৪ ওভার বল করে মাত্র ১৮ রান দিয়ে এক উইকেট শিকার করেছেন মোস্তাফিজ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ