বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০৮:০৩ পূর্বাহ্ন

শেষ মুহুর্তে সিলেটে আতর-টুপির জমজমাট কেনাবেচা

শেষ মুহুর্তে সিলেটে আতর-টুপির জমজমাট কেনাবেচা

নিউজটি শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক : শেষ মুহুর্তে জমে উঠেছে আতর-টুপি, তাসবিহ, জায়নামাযসহ সুন্নাহ সামগ্রি কেনার ধুম। সন্ধ্যারাতের সাথে সাথে বাড়ছে কুদরত উল্লাহ, বন্দর জামে মসজিদ মার্কেট, হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার মার্কেটে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ভীড়।

যে যার পছন্দের মতো টুপি-আতর কেনায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। কেউ কেউ সময় বাঁচাতে বিক্রেতার কাছে সাইজ বলে টুপি গ্রহণ করে মূল্য পরিশোধ করে দ্রুত চলে যাচ্ছেন আবার কেউ কেউ পছন্দের টুপি পরে গ্লাসের দিকে তাকিয়ে সাইজ মেলাচ্ছেন।

নগরীর বন্দরবাজারস্থ করিমউল্লাহ মার্কেটের নিবরাস সুন্নাহ ঘরের ডিরেক্টর তুফায়েল আহমেদ বলেন, এলকোহলমুক্ত পারফিউম বাজারে এখন পর্যাপ্ত পরিমানে বিদ্যমান থাকায় উঠতি বয়সি তরুণরা আতর এর দুর্বল হয়ে পড়েছেন। তাছাড়া সুন্নাহ সামগ্রী ব্যবহারে তরুণদের আগ্রহের অন্যতম কারন ইসলামি তাহজিব তামাদুন তথা ইসলামি সংস্কৃতি চর্চায় তারা এখন বেশী স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন।

এদিকে, মকবুল হোসাইন নামের একজন ব্যবসায়ী বলেন, তরুণ সমাজরা ব্যবসায় বাণিজ্যে জড়িত হওয়ার কারনেই তরুণদের ঝুঁকবাড়ে এইদিকটাতে।

তরুণরা এবার ইন্দোনিশেয়ান আর তুর্কির নকশা করা টুপি কেনছেন। দামী জামা-জুতা সব কেনা হয়েছে। কিন্তু আতর টুপি না হলে ঈদ উদযাপন একেবারে বৃথা। মহানবী হযরত মুহাম্মদ সা. সুগন্ধি আতর পছন্দ করতেন। তাই ঈদে নতুন জামার সঙ্গে সুগন্ধি আতরও অন্যতম অনুষঙ্গ। গায়ে আতর লাগিয়ে, নতুন জামা পরে ঈদের জামাতে শরিক হয় ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা। ঈদের কেনাকাটার শেষ মুহূর্তে চলছে তাই আতর কেনার ধুম। একই সঙ্গে কেনা হচ্ছে জায়নামাজ, টুপি ও তসবিহ।

নগরীর কুদরত উল্লাহ, বন্দর জামে মসজিদ মার্কেট, হযরত শাহজালাল রহ. মাজার মার্কেট, বায়তুল আমান (আল-মারজান) মার্কেট, হাসান মার্কেটের সম্মুখপানসহ বিভিন্ন দোকানগুলোতে দেখা যায় ক্রেতাদের তীব্র ভিড়। পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সিলেটের আতর আর টুপির বিক্রেতারা আজমলসহ ভারত, সৌদি আরব, দুবাইয়ের নামকরা কম্পানির আতর সরবরাহ করেছেন। ভারত ও দুবাইয়ের বিভিন্ন কোম্পানির আতরের চাহিদা বেশি।

এ ছাড়া তাইপে রোজ এক হাজার ২০০ টাকা, ইস্তাম্বুল রোজ ৬০০ টাকা, চন্দনের আতর এক হাজার ২০০ টাকা, মিশক আম্বার ও সুলতান ৪০০ টাকা করে বিক্রি করে থাকি।

ক্রেতাদের কাছে এগুলোর চাহিদাও বেশি। সিলেট নগরীর এসব আতরের দোকানে দুবাইয়ের আল-হারামাইন আতর বিক্রি হচ্ছে প্রতি তোলা ৫০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকায়। পিছিয়ে নেই কুদরত উল্লাহ মসজিদ গেইট, শাহজালাল মাজার গেইটসহ নগরীর বন্দরবাজারস্থ নগর ভবনের সামনেও আতরের দোকানগুলোও। বন্দরবাজার জামে মসজিদ ও এর আশপাশ এলাকার দোকানগুলোয় পাওয়া যাচ্ছে রেড রোজ, লর্ড, আত্তাবফুল, মদিনা, আলিফ, গোল্ডেন নামের আতর। বিক্রি হচ্ছে সর্বনিম্ন ৫০ থেকে সর্বোচ্চ এক হাজার ৮০০ টাকা পর্যন্ত।

সারা বছরের তুলনায় পবিত্র রমজানে বেড়ে যায় টুপি ও জায়নামাজ বিক্রি। এবারও এর ব্যতিক্রম নয়। তবে এ বছর অনেকটাই দাম বেড়েছে টুপি ও জায়নামাজের। মঙ্গলবার করিম উল্লাহ মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা যায়।

ব্যবাসায়ীরা জানান, পাকিস্তানি, ইন্ডিয়ান, চায়না এবং বাংলাদেশি টুপির চাহিদা বেশি। এসব টুপি গতবারের চেয়ে ২০ থেকে ৫০ টাকা বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। সর্বনিম্ন ২০০ থেকে সর্বোচ্চ দুই হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে এসব টুপি। এ মার্কেটের ব্যবসায়ী মাশহুদুল আম্বিয়া মহসিন বলেন, ‘রমজান উপলক্ষে টুপি বিক্রি বেড়ে গেছে। তবে এবার দাম একটু বেশি। আমরা টুপি বিক্রি করছি সর্বনিম্ন ২০০ টাকা দরে। সারা বছর তো বিক্রি খুব একটা থাকে না, তাই রমজানের সময়টায়ই বিক্রিটা জমে ওঠে।’

জায়নামাজের দোকানগুলোতেও জমে উঠেছে বেচাকেনা। বেশি বিক্রি হচ্ছে তুর্কি, পাকিস্তানি এবং চায়না জায়নামাজ। বিক্রির শীর্ষে রয়েছে তুর্কি জায়নামাজ। প্রতিটি জায়নামাজ বিক্রি হচ্ছে ২৫০ থেকে এক হাজার টাকার মধ্যে। ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, ‘রমজানের শুরুতে আমাদের ব্যবসা শুরু হয়। শেষ হয় হজের পর। এতে মোটামুটি ছয় মাসের মতো বিক্রি ভালো থাকে। আর ছয় মাস থাকে মন্দা। এর মধ্যে ২৫ রমজান পর্যন্ত জোরেশোরে বিক্রি চলে।’

রমজানে বিক্রি বেড়ে যাওয়া আরো কয়েকটি পণ্যের মধ্যে রয়েছে তসবিহ ও মেসওয়াক। তবে তসবিহর দাম নির্ভর করে পাথরের ওপর। যেসব পাথর বেশি চলছে, এর মধ্যে রয়েছে আকিরা পাথর, ক্রিস্টাল, ইন্ডিয়ান, ফাইবার, রেডিয়াম, কাঠ ও ডিজিটাল। এসব পণ্যের বিক্রিও অন্য সময়ের চেয়ে বেশ বেড়ে গেছে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

আতর কিনতে আসা এক তরুণের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, নামাযের অন্যতম অনুষঙ্গ জিনিষপত্র না কেনলে যে ঈদ উদযাপন একেবারে সাদামাটা হয়ে যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ