রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:৩৭ অপরাহ্ন

সরকার মানুষ হত্যার অস্ত্র কিনছে, বাঁচানোর যন্ত্র কিনছে না: রিজভী

সরকার মানুষ হত্যার অস্ত্র কিনছে, বাঁচানোর যন্ত্র কিনছে না: রিজভী

রুহুল কবির রিজভী— ফাইল ছবি

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত ডেস্ক:সরকার ‘গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে দমন করার জন্য’ আধুনিক মারণাস্ত্র কিনলেও মানুষ বাঁচানোর জন্য যন্ত্রপাতি কিনছে না বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে শনিবার আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, ‘সরকার আগুন নেভাতে ও মানুষজন উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। মানুষ বাঁচানোর জন্য কোনো উন্নতমানের যন্ত্রপাতি ফায়ার সার্ভিসের নেই, ব্যবস্থাপনাও নেই। অথচ গণতান্ত্রিক সংগ্রামকে দমন করার জন্য আনা হয়েছে সর্বাধুনিক বিপজ্জনক টিয়ারশেল, স্মোক গ্রেনেড, সাউন্ড গ্রেনেড, রাবার বুলেট, গোলমরিচ-স্প্রেসহ নানা ধরনের আধুনিক অস্ত্র। বিএনপিসহ বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করার জন্য, মানুষ হত্যার জন্য নিয়ে আসা হয়েছে ৩০ হাজার আধুনিক মরণঘাতী ১২ বোর শর্টগান। কয়েক হাজার কোটি টাকায় শর্টগানের জন্য ৩০ লাখ কার্তুজ আমদানি করা হয়েছে।’

এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘স্বীকারোক্তি আদায় বা নির্যাতনের জন্য আনা হয়েছে ইলেকট্রিক চেয়ার ও ইলেকট্রিক শক দেওয়ার অত্যাধুনিক ডিভাইস। বিরোধীদলের ফোনে আড়িপাতার জন্য বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সংবলিত যন্ত্রপাতি আনা হয়েছে। গোপনে অডিও-ভিডিও করার উন্নতমানের ডিভাইস আনা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলার বিভিন্ন বাহিনীকে হেলিকপ্টার দেওয়া হয়েছে। মানুষ হত্যার জন্য ব্যয়বহুল আধুনিক যন্ত্রপাতি কেনা হয়েছে, কিন্তু মানুষ বাঁচানোর জন্য আধুনিক যন্ত্রপাতির কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

বনানীর এফ আর টাওয়ারের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে মানুষজন উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসসহ উদ্ধারকর্মীদের প্রাণান্তর চেষ্টার প্রশংসা করে রিজভী বলেন, ‘ফায়ার সার্ভিসের আধুনিকায়ন করা হয়নি। দুর্ঘটনার সংবাদ পাওয়ার কোনো আধুনিক যন্ত্র তাদের কাছে নেই, দুর্ঘটনাস্থলে উদ্ধারকর্মীদের দ্রুত পৌঁছানোর জন্য কোনো উন্নতমানের বিকল্প ব্যবস্থাও নেই। সব কিছুই সেকেলে।’

তিনি বলেন, ‘সরকার স্যাটেলাইট পাঠিয়ে মহাকাশ জয় করেছে দাবি করলেও মানুষ বাঁচানোর জন্য তাদের কোনো আগ্রহ নেই। মানুষ বাঁচাতে তাদের কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। যারা জনগণের ভোটাধিকারকে ডাকাতি করতে পারে, মানুষের অধিকারকে নির্মমভাবে দমন করতে পারে তারা সব কিছু করতে পারে। এগুলো হচ্ছে সম্পূর্ণ জবাবদিহিবিহীন একটি সরকারের কর্মকাণ্ড।’

পুরনো ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা খালেদা জিয়ার ‘সুচিকিৎসা’ না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করে অবিলম্বে তার মুক্তি দাবি করেন রিজভী।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অধ্যাপক সাহিদা রফিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ