শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ০৫:০৯ অপরাহ্ন

সিলেটে পেঁয়াজ রসুনের দাম উর্ধ্বমুখী

সিলেটে পেঁয়াজ রসুনের দাম উর্ধ্বমুখী

নিউজটি শেয়ার করুন

নন্দিত সিলেট :  এক সাপ্তাহের ব্যবধানে সিলেটের বাজারে তিন দফা বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। বিক্রেতারা জানিয়েছেন গত সাপ্তাহে পেঁয়াজের দাম ছিলো ২৩ থেকে ২৪ টাকা। তিন দফায় এই দাম বেড়ে এখন খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা করে। বাজারে পণ্য সরবরাহ কম থাকায় দাম বেড়েছে বলে জানিয়েছেন তারা। শুক্রবার বাজার ঘুরে একই অবস্থা দেখা গেছে রসুনের বেলায়ও। ৫০ টাকার রসুন বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা এবং ৮০ টাকার রসুন বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা। রোযার আগে হঠাৎ করে এই দাম বাড়ার কারণে বেশ চিন্তায় পড়েছেন অনেক ক্রেতা। তারা বলছেন, এটা আসলেই সংকট নাকি রোযার আগে ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেট কারসাজি তা বাজার সংশ্লিষ্টদের খতিয়ে দেখা দরকার।

অন্যান্য বারের তুলনায় এবার পেঁয়াজের উৎপাদন এবং আমদানী বেশ ভালো ছিলো। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) হিসাবে, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দেশে পেঁয়াজ উৎপাদিত হয়েছে ১৮ লাখ ৬৬ হাজার টন, যা আগের বছরের চেয়ে ১ লাখ ৩১ হাজার টন বেশি। বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাবে, গত অর্থবছরে ১০ লাখ ৪১ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে, যা আগের বছরের চেয়ে ৩ লাখ ৪০ হাজার টন বেশি। সব মিলিয়ে গত অর্থবছরে পেঁয়াজের জোগান এসেছে ২৯ লাখ টন।

কয়েকদিন আগে পাইকারী বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছিলো মানভেদে কেজিপ্রতি ১৮, ২২ এবং ২৩ টাকা করে। তখন বস্তা ছিলো ৯শ, ১১শ এবং সাড়ে ১১শ টাকা। খুচরো বাজারে বিক্রেতারা পেঁয়াজ সেই অনুপাতে ২ থেকে ৩ টাকা করে বিক্রি করছিলেন। আর সেই পেঁয়াজ রোযা আসার আগেই এখন ৩০ টাকা।

পাইকারী বাজারে দেশি রসুনের দাম ছিলো বস্তাপ্রতি ২৪শ টাকা এবং ইন্ডিয়ান ৩ হাজার ৯শ টাকা। ফলে পাইকারী বাজারে কেজিপ্রতি ছোট আকারের দেশি রসুনের দাম ছিলো ৪৮ টাকা এবং ইন্ডিয়ান কেজি ৭৮ টাকা। খুচরা বাজারে ৫০ এবং ৮০ টাকা। দেড় সাপ্তাহের ব্যববধানে সেই রসুনের দাম এখন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮০ এবং ১২০ টাকায়।

শুক্রবার খুচরা বাজারে পেঁয়াজ রসুনের বাইরে আদা বিক্রি হয়েছে কেজিপ্রতি ১০০ থেকে ১২০ টাকা, এলাচ কেজিপ্রতি ১৫শ টাকা, লবঙ্গ কেজিপ্রতি ১৩শ টাকা, গুলমরিচ ১২শ টাকা, জিরা ৪শ টাকা এবং ছোলা কেজিপ্রতি ৭০টাকা।

নগরীর বন্দরবাজারের ব্যবসায়ী কামাল  জানান, কিছু পণ্যের সামান্য দাম বেড়েছে এটা আসলে বাজারে পণ্য সরবরাহ কম থাকার ফলেই হয়েছে বলে তিনি মনে করেন। আবহাওয়া ভালো হলে এবং পণ্য সরবরাহ স্বাভাবিক হলে দাম স্থিতিশীল থাকবে বলে তার ধারণা।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ