শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৭:২৪ পূর্বাহ্ন

হবিগঞ্জে চুরি করতে দেখে ফেলায় প্রবাসীর স্ত্রী’কে হত্যা!

হবিগঞ্জে চুরি করতে দেখে ফেলায় প্রবাসীর স্ত্রী’কে হত্যা!

নিউজটি শেয়ার করুন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জ সদর উপজেলার নাজিরপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী সাজেরা খাতুন হত্যার ৯ মাস পর ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। এ ব্যাপারে মামলার অন্যতম আসামী ঘাতক আব্দুর রউফ (২৫) আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

এ ব্যাপারে ঘাতক আব্দুর রউফ আদালতকে জানায়, সেসহ ৪/৫ যুবক ওই প্রবাসীর বাড়িতে চুরি করতে যায়। এ সময় প্রবাসীর পুত্রবধু বাড়িতে ছিল না। এক পর্যায়ে টাকা পয়সা ও স্বর্ণালঙ্কার চুরি করার সময় সাজেরা তাদের চিনে ফেলায় হাত-পা বেধে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রবিউল ইসলাম প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে সোমবার রাতে পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পইল গ্রাম থেকে আব্দুর রউফকে আটক করে। সে নাজিরপুর গ্রামের আব্দুন নূরের পুত্র। রাতভর জিজ্ঞাসাবাদে সে ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত এবং কারা কারা আরও জড়িত ছিলো তা প্রকাশ করে। তবে তদন্তের স্বার্থে পুলিশ বাকি ঘাতকদেও নাম প্রকাশ করেনি।

মঙ্গলবার বিকালে আটক আব্দুর রউফকে হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলামের আদালতে প্রেরণ করলে ১৬৪ ধারা জবানবন্দিতে সে হত্যা কথা স্বীকার করে উল্লেখিত বিষয়ে জবানবন্দি দেয়।

প্রসঙ্গ, ২০১৮ সালের ২১ সেপ্টেম্বর প্রবাসীর স্ত্রী সাজেরা খাতুনের হাত-পা ও মুখ কাপড় দিয়ে বাধা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই বছরেরই ২৫ সেপ্টেম্বর সৌদি থেকে সাজেরার স্বামী সঞ্জব আলী দেশে এসে সদর থানায় অজ্ঞাতনামা আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি দীর্ঘ ৯ মাস তদন্ত করে পুলিশ মূল রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *







© All rights reserved © 2017 Nonditosylhet24.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ